Sports News

[Content Marketing][recentmag]
Footer Logo

২০২১/০৭/০২

ভাবার্থ লেখার নিয়ম Bhabartha Likhan

  BAIRAGYA SHIKSHA NIKETAN       ২০২১/০৭/০২

 ভাবার্থ লিখন Bhabartha Likhan

ভাবার্থ লিখন Vabartha Likhon
 ভাবার্থ লিখন Vabartha Likhon


ভাবার্থ কাকে বলে? 


নির্দিষ্ট কোন গদ্যাংশ বা পদ্যাংশের মূলভাবকে ছোট করে নিজস্ব ভাষা দিয়ে প্রকাশ করাকে ভাবার্থ বলে। ভাবার্থ হতে হবে স্পষ্ট এবং স্বচ্ছ। ভাবার্থ লিখন করতে হলে নিয়মিত ভাষা অনুশীলন করতে হবে। ভাবসম্প্রসারণের সঙ্গে ভাবার্থ লিখন এর অনেক পার্থক্য আছে। ভাবার্থ লেখার ব্যাপারে নির্দিষ্ট নিয়ম কিছু নেই। ছাত্র-ছাত্রীরা কতটা উপলব্ধি করতে পারল তার উপর নির্ভর করে ভাবার্থ লিখন এর সার্থকতা। 


ভাবার্থ কিভাবে লিখবে? 


অনেক ছাত্র-ছাত্রী ভাবার্থ লিখন বিষয়টিকে এড়িয়ে চলে। ভাষাগত দক্ষতা না থাকার জন্য ভাবার্থ লিখন লিখতে পারে না অনেকে। ভাবার্থ লেখার আগে কতগুলি বিষয় তোমাদের জেনে রাখা প্রয়োজন:


1. সে অনুচ্ছেদটি প্রশ্নপত্রে রয়েছে সেটিকে একাধিকবার মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে এবং তার মূলভাব ভালোভাবে বুঝতে হবে। 


2. ভাবার্থ লেখার পরিমাপ বিষয়ে নির্দিষ্ট কোনো নিয়ম নেই। বিষয়বস্তুর গুরুত্ব অনুসারে ভাবার্থের আকার নির্ধারণ করতে হবে। 


3. ভাবার্থ লেখার সময় অলংকার, উপমা কিংবা কঠিন ব্যঞ্জনাধর্মী শব্দ বাদ দিতে হবে। প্রকৃত সত্যকে তুলে ধরতে হবে। 


4. ভাবার্থ লিখনের সময় কবি বা লেখকের নাম উল্লেখ করা চলবে না। 


5. ভাবার্থ লেখার সময় পরোক্ষ উক্তি ব্যবহার করতে হবে। প্রত্যক্ষ উক্তিতে ভাবার্থ লেখা উচিত নয়। 


6. অকারনে কঠিন ভাষার ব্যবহার বা অলংকার ব্যবহার না করে অত্যন্ত সহজ ও সরল ভাষায় ভাবার্থ লিখতে হবে। 


ভাবার্থ লিখন একটি উদাহরণ:


মূল অনুচ্ছেদ:

হে ভারত, ভুলিও না- নীচজাতি, মূর্খ, দরিদ্র, অজ্ঞ  মুচি, মেথর তোমার রক্ত, তোমার ভাই। হে বীর, সাহস অবলম্বন কর, সদর্পে বল আমি ভারতবাসী, ভারতবাসী আমার ভাই, বল- মূর্খ ভারতবাসী, দরিদ্র ভারতবাসী, ব্রাহ্মণ ভারতবাসী, চন্ডাল ভারতবাসী আমার ভাই, ভারতবাসী আমার প্রাণ, ভারতের সমাজ আমার শিশু শয্যা, যৌবনের উপবন, বার্ধক্যের বারানসী, বল ভাই- ভারতের মৃত্তিকা আমার স্বর্গ, ভারতের কল্যাণ আমার কল্যাণ, আর বল দিনরাত, মা আমার দুর্বলতা, কাপুরুষতা দূর কর, আমায় মানুষ কর। 


ভাবার্থ: জাতি ধর্মের পার্থক্য থাকা সত্বেও সবচেয়ে বড় ও প্রথম পরিচয় হলো আমরা ভারতবাসী। সকল প্রকার ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে নীচ, মূর্খ ও দরিদ্র সকল শ্রেণীর মানুষকে ভাই বলে ভাবতে হবে। দ্বিধাহীনভাবে স্বীকার করতে হবে ভারতভূমি আমাদের স্বর্গ, ভারতের সমাজ শৈশব থেকে বার্ধক্য কাল পর্যন্ত বেঁচে থাকার অবলম্বন। দুর্বলতা ও কাপুরুষতা ত্যাগ করে প্রকৃত মানুষ হতে হবে। 


।।সমাপ্ত।।


logoblog

Thanks for reading ভাবার্থ লেখার নিয়ম Bhabartha Likhan

Previous
« Prev Post

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Please do not enter any spam links in the comment box.